পীর-আউলিয়াদের সুপারিশ কিংবা দেব-দেবীদের আশীর্বাদ

ক্যামেরা-ভীতি দূর করার জন্য ট্রায়াল। আলোচনার বিষয়: পীর-আউলিয়া সিস্টেম কোত্থেকে আসলো?

ফেসবুকে প্রদত্ত মন্তব্য-প্রতিমন্তব্য

Muhammad Emdad-Ul Haque: বর্তমানে মানুষের কিছু ভন্ডামীপূর্ণ আচরণ ও কর্মের জন্য সত্যিকারের পীর আওলিয়ার বিরুদ্ধে তোহমদ চলছে।

এ উপমহাদেশে ইসলামের বাণী কিন্তু কোন নবী রাসুল সাহাবি তাবেয়ীর মাধ্যমে পৌছায়নি বরং পীর আওলিয়া দরবেশের মাধ্যমে ইসলামের বাণী এ উপমহাদেশে এসেছিল।

Mohammad Mozammel Hoque: হতে পারে আমি কোনো ভালো কিছু পেয়েছি খারাপ পদ্ধতিতে। সে জন্য সেটা অর্থাৎ সেই খারাপ পদ্ধতিটা ভালো হয়ে যায় না। এ রকম ‘বিস্ফোরক’ প্রত্যুত্তরের পক্ষে আপনার বুঝার জন্য দুইটা উদাহরণ দিচ্ছি:

(১) মোঙ্গলরা মুসলিম পুরুষদের হত্যা করে মুসলিম নারীদের জোর করে শয্যাসঙ্গী করেছিলো। তাদের এই অপ্রেসিভ পদ্ধতিটার পরিণতিতে, সেইসব মহিয়সী মুসলিম নারীদের দাওয়াতী কাজের প্রভাবে এক পর্যায়ে তারা ইসলাম গ্রহণ করে।

(২) রাসুলুল্লাহর (সা.) সময় থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত মূলত ভিতর থেকে কনভিন্স না হয়ে অনেকেই নানা রকমের সুযোগ সুবিধার জন্য ইসলাম কবুল করেছে। ঘুমিয়ে থাকার ভান করতে করতে এক পর্যায়ে ঘুমিয়ে পড়ার মতো এসব সুবিধাবাদীরা অথবা তাদের পরবর্তী বংশধরগণ সত্যিকারের ঈমানদার হয়ে যায়।

এবার বলেন, দস্যুবৃত্তি বা সুবিধাবাদিতা কি গ্রহণযোগ্য হবে? অথচ, এগুলো থেকে সত্যিকারের ভালো কিছু তো মানুষ পেয়েছে।

সে জন্য, বিষয়, পদ্ধতি ও পরিণতি বা ফলাফলকে আলাদাভাবে বিবেচনা করতে হবে। একজন ফাসেকের অধীনে বৈধ জিহাদ হতে পারে। জিহাদের বৈধতা ইয়াযিদের জোরপূর্বক খলীফা বনে যাওয়াকে বৈধতা দেয় না।

Jubairul Hasan Arif: স্যার, আপনি কি পীর, বাইয়াত সিস্টেমের পুরো কনসেপ্টটাকে জাহেলিয়াত বলতে চাচ্ছেন?

অহিন্দু এলাকায়ও (পারস্য, কাজাখিস্তান ইত্যাদি) দেশে এ রকম সিস্টেম চালু আছে।

Mohammad Mozammel Hoque: দেবদেবী সিস্টেম শুধুমাত্র ভারতীয় উপমহাদেশের phenomena, এমন তো নয়। ইসলামপূর্ব সময়ে ইরানীদের ছিল নিজস্ব দেব-দেবী। যেমন করে ছিল গ্রীক এবং রোমানদের।

ফেরেশতাদেরকে দেবদেবীর মর্যাদায় প্রতিষ্ঠা করতে না পেরে পীর আউলিয়াদেরকে তারা দেবদেবীর আসনে বসিয়েছে।

Jubairul Hasan Arif: এক্ষেত্রে জাহেলিয়াতের উপর প্রতিষ্ঠিত এইসব পীরের বাইয়াতের গ্রহণযোগ্যতা কতটুকু স্যার?

নাকি বাইয়াত বিষয়টাই তাদের সাথে যায় না?

Mohammad Mozammel Hoque: জাহেলী উপাদান বাদ দেওয়া সাপেক্ষে যে কোনো কিছু সঠিক হতে পারে। আমি ব্যক্তিগতভাবে প্র্যাকটিক্যালি inclusiveness বা সহনশীলতার পক্ষে। প্রথা হিসেবে বাইয়াত খারাপ না, যদি এটাকে mandatory মনে না করা হয়। বাইয়াতের মূল ফরম্যাটটা হল রাষ্ট্রীয় আনুগত্য।

Jubairul Hasan Arif: স্যার, রাষ্ট্রের অবর্তমানে বাইয়াতের কি কোনো মূল্য নাই?

আকাবার ১ম,২য়, ৩য় শপথ

Mohammad Mozammel Hoque: ওয়াদা আর বাইয়াতের মধ্যে পার্থক্য বুঝতে হবে। রাষ্ট্রের বা রাষ্ট্রগঠনের ওয়াদা আর কেনাবেচা, দৈনন্দিন সামাজিক give and take বা সাধারণ দেয়া-নেয়া, এসব কাজে প্রতিনিয়ত আমরা যে ওয়াদা করি, এই দুই ধরনের ওয়াদা এক নয়। সব বাইয়াতই ওয়াদা। কিন্তু সব ওয়াদাই বাইয়াত নয়। বাইয়াত হলো এক ধরনের প্রাতিষ্ঠানিক বা আনুষ্ঠানিক ব্যাপার যেটার রয়েছে সুদূরপ্রসারী কোনো লক্ষ্য বা তাৎপর্য।

Shakir Elahi: স্যার, ইমাম গাজ্জালী, আব্দুল কাদির জিলানী, মাওলানা রুমি, ফারিদুদ্দিন আত্তার, ইবনুল আরাবী – এদের সম্পর্কে আপনার ধারণা কি?

Mohammad Mozammel Hoque: Your question is genuine and very much important. but this is not an issue or topic of this discussion. if I respond to your question then it will engage me with another topic. It is called a fallacy, you know it is called Red Herring fallacy. Thanks for your concern. never mind, please.

Shakir Elahi: স্যার, আপনি ঠিক বলেছেন যে যার যার অর্জন তাকে নিজে করতে হবে, কোনো আওলিয়া দরবেশ কাউকে বিচারদিনে পার করে দিতে পারবে না। তবে আমরা যদি কোনো জেনুইন আল্লাহর অলিকে একজন শিক্ষক হিসাবে দেখি যিনি কুরআন সুন্নত অনুযায়ী কাউকে বুদ্ধি পরামর্শ দেন যে কিভাবে সে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করবে, সেক্ষেত্রে এটাকে কী বলবেন।

আমি রিসেন্টলি মাওলানা আশরাফ আলী থানভী সাহেবের একটা বই দেখলাম যেখানে তার মুরিদরা আল্লাহর রাস্তায় চলার পথের বিভিন্ন বাধাগুলির উল্লেখ করতেসেন এবং কিভাবে নফসকে সহজে দমন করা যায় এবং গুনাহ ত্যাগ করা যায় এই বিষয়ে উনার পরামর্শ চাচ্ছেন, মাওলানা সাহেব তার সাধ্যনুযায়ী পরামর্শ দিচ্ছেন। এটা অনেকটা রোগের চিকিৎসার মতো। তবে এই ক্ষেত্রে রোগটা শরীরের নয় বরং আধ্যাত্মিক।

অ্যারিস্টটল তার ফিলাসফি শিক্ষা দিয়েছেন দুই হাজার বছরের আগে। আর এখন আপনারা উনার ফিলোসফি পড়ান। তেমনি খাঁটি আল্লাহর বন্ধুরা নবীর শিক্ষা আমাদের স্মরন করিয়ে দেন। এই ভূমিকাটাকে আপনি কী বলবেন? আমি যদি ইমাম গাজ্জালীর সাথে দেখা করি, তাহলে তার ছাত্র হয়ে যাব এবং উনার কাছে আমার জন্য দোয়া চাব, যেমন আপনার কাছেও দোয়া চাব। আমি কি এই ক্ষেত্রে ঠিক আছি বলে আপনার মনে হয়?

Mohammad Mozammel Hoque: Religious mediating authority or priest class system is disapproved in Islam. Though, for getting proper teaching and guidance, a good mentor is a must.

পোস্টটির ফেসবুক লিংক

Leave a Reply