তোমাদের জন্য

[গত পরশুদিন অনুষ্ঠানহীন ৪৭তম জন্মদিন পালনপূর্বক আমার ৪৮ বছরে পদার্পণ উপলক্ষ্যে একটা স্মৃতিচারণমূলক কবিতা]

জানি – সব মুছে গিয়ে একদিন
থাকবে শুধু কিছু স্মৃতি
একদিন সব কষ্ট মুছে গিয়ে
থাকবে শুধু কিছু ভালো লাগা অনুভূতি
জীবন – থাকে না থেমে কারো জন্য কিছুমাত্র
কোন্ মুহুর্তে ক্ষণে অতিক্রম করে চিরতরে
আমরা পেরিয়ে যাই
প্রিয় কাংখিত কোন পর্যায়
জীবনের একেকটি ধাপ
আমরা বুঝতে পারি না

আজ যা অন্য রকমের ভালো লাগা
কিম্বা দুঃখময় অভিমানী বেদনা
সময়ের ব্যবধানে একদিন তা
কাঁদাবে তোমাদের
অথবা তা-ই হবে সুন্দর সুখময় সান্তনা
যত দুঃখ কষ্ট বেদনা গ্লানি
সব মুছে গিয়ে জানি একদিন থাকবে শুধু
জীবনের ফেলে আসা এই দিনগুলোর
এই ঋদ্ধ যৌবনের
এই উচ্ছ্বল তারুণ্যের এক মধুরতম স্মৃতি

জানি, ভালবাসা মানুষকে কাঁদায়
তবুও আমরা বারে বারে
ফিরে যাই নিবেদনের দ্বারে
রুদ্ধ কপাটে ঠুকরে মরি হাহাকার করি
শত পূর্ণতার মাঝেও বোধ করি অদ্ভূত শূন্যতা
গন্তব্য ভেবে ভুল করি
জীবনের প্রতিটা ঘাটে নামতে চাই
সুদূরের মঞ্জিল ভুলে

এ-ই হলো প্রিয় অলকা আর কাজরী –
মানুষের জীবনের অমোঘ বৈশিষ্ট্য পরিচয় পরিণতি

এ জগত হলো প্রতিচ্ছবি শুধু
এখানে কিছুই চিরদিনের নয়
এখানে চিরন্তন বলে কিছু নাই
আছে শুধু প্রতিশ্রুতি আশা কিংবা অর্থহীন নিরন্তর ছুটে চলা
এ যেন আমার আত্মসত্তার উপস্থিতি
সাথে নিয়ে
যাপিত জীবনের
ফেলে আসা সব বেদনা-মধুর স্মৃতি…

[প্রকৃত রচনাকাল: ১০ অক্টোবর, ১৯৯৫। দক্ষিণ ক্যাম্পাস, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়]

মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক

নিজেকে একজন জীবনবাদী সমাজকর্মী হিসেবে পরিচয় দিতে সবচেয়ে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে পড়াই। চাটগাইয়া। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে থাকি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *