তোমার জীবনে আমি

তোমার ঘুম ভাংগাইনি আমি
ছিলাম না তোমার ছোটবেলার সাথী
আমার সাথে নেই তোমার
শৈশব কৈশোরের কোনো স্মৃতি
তোমার প্রথম যৌবনের দীপ্ত কামনায়
ছিলাম না আমি, আমার জন্য
কখনো কোনো পংক্তি রচিত হয়নি
তোমার হাতে
আমার কল্পনায় তুমি হওনি উন্মনা
কোন নীরব আকুল ক্ষণে
তোমার পূজার বেদিতে নিভৃত নিবেদনে
গাঁথামালা সমর্পণে ছিলাম না আমি
তোমার সাহচর্য, কামনা সঙ্গ-তৃষা
মেটেনি আমাকে দিয়ে কোনোদিন এতটুকু
তোমার চাওয়ার জগতে যত প্রাপ্তি
তাতে কোনো অংশ নেই আমার
তোমার ভুবনে তুমি সুখী
সুন্দর জীবনে তৃপ্ত
তোমার পরিত্যক্ত বাগানে আমি এক নিভৃতচারী
তুচ্ছ পূজারী
তোমার মধ্য যৌবনের এ পড়ন্ত বেলায়
আমি এক মুগ্ধ দর্শক শুধু
হেঁটে যাওয়ার পরে সমুদ্র তটের পদচিহ্নের মতো
যার চলার নিদর্শন মুছে যায় হারায় ক্ষণ পরে চিরতরে
তোমার জীবনে আমি তেমনি শূন্য অতীত
সম্ভাবনাহীন ভবিষ্যতের ফুরিয়ে যাওয়া এক
ক্ষণিক স্মৃতি…!

[প্রকৃত রচনাকাল: ২২ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৭ ।। চবি]

ফেসবুক লিংক

Leave a Reply